অস্ট্রেলিয়া বিএনপির সভাপতি আরিফ লক্ষ্মীপুর—০ ৩ সদর আসন থেকে বিএনপির প্রার্থী

লক্ষ্মীপুর—০ ৩ সদর আসন থেকে বিএনপির প্রার্থী অস্ট্রেলিয়া বিএনপির সভাপতি মোঃ মোসলে উদ্দিন হাওলাদার আরিফ।
—————————————————
লক্ষ্মীপুর জেলার কৃতি সন্তান ,বি এন পি অস্ট্রেলিয়া র সভাপতিও জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দলের সাবেক আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক জনাব মোঃ মোসলে উদ্দিন হাওলাদার আরিফ আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে লক্ষ্মীপুর ৩ সদর ও চন্দ্রগন্জ আসন থেকে দলীয় মনোয়ন পাওয়ার জন্য কাজ করেছেন। এই নিয়ে চলছে লক্ষ্মীপুরের বিএনপির সমর্থদের মধ্যে রয়েছে সর্বত্র ব্যাপক আলোচনা । যদিও এই আসনে সাবেক দুইবারের সাবেক সংসদ সদস্য বি এন পির প্রচার সম্পাদক জনাব শহিদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি দলের অপ্রতিদ্বন্ধী প্রার্থী তাছাড়া সাবেক ছাত্র নেতা হিসাবে দুজনের মধ্যে রয়েছে খুবই ভাল সুসম্পর্ক। কিন্তু বি এন পি এবার তাদের প্রার্থী তালিকায় ব্যপক পরিবর্তন আনবেন বলে শুনা যাচ্ছে এবং বিভিন্ন আসনে সৎ যোগ্য ত্যাগী নতুন মুখ প্রার্থী করবেন বলে ব্যাপক ভাবে আলোচনা শুনা যাচ্ছে । সেই হিসাবে মোঃমোসলে উদ্দিন হাওলাদার আরিফ লক্ষ্মীপুর ৩ সদর আসনের বিএন পির আগামীতে যোগ্য প্রার্থী । এলাকায়ও রয়েছে তার ব্যাপক জন সমর্থন । বিশেষ সদর আসনের মূল ভোট ব্যাংক হলো সদর থানার পূর্ব অঞ্চলে আর জনাব আরিফ সাহেবের বাড়ী সেই অঞ্চলের সম্ভান্ত পরিবারে তার জম্ম করে নতুন প্রজন্ন,শিক্ষিত ,ভদ্র মানুষ এর সংখ্যা বেশী তার তার সমর্থকদের তালিকায়।

এলাকায় বিভিন্ন পেশার মানুষের সাথে আলোচনায় জানা যায় লক্ষ্মীপুর সদর আসনের লোকজনের বিভিন্ন সমস্যর কথা । তার মধ্য উল্লেখ্য যোগ্য সমস্যা হল সন্ত্রাস । এই এলাকাটি সন্ত্রাস এর ভয়াল জনপদ হিসাবে পরিচিত ,এলকা বাসীর একটাই দাবী সন্ত্রাস মুক্ত লক্ষ্মীপুর চাই আর এই সন্ত্রাস মুক্ত লক্ষীপুর গড়তে মোঃমোসলে উদ্দিন হাওলাদার আরিফ ভাইকে এই আসনের বি এন পি প্রার্থী হিসাবে চাই ।

বিএনপি এর জনৈক প্রভাবশালী এক ইউ পি চেয়ারম্যান বলেন,মোঃ মোসলেউদ্দিন হাওলার আরিফ এই আসনের প্রার্থী হলে আমরা ব্যাপক ভোটের ব্যবধানে জয় লাভ করবো এবং এই এলাকাকে সন্ত্রাসমুক্ত এলাকা হিসাবে গড়ে তুলতে পারব ।

এই ব্যপারে জনাব মোসলে উদ্দিন আরিফ এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন আমি সব সময় লক্ষীপুর বাসীর সাথে ছিলাম ,আছি থাকব । আমি সময় এলাকাবাসীর দাবীকে প্রাধান্য দিয়ে আসছি এলাকাবাসী ও বিএনপি যদি চায় আমি অবশ্যই প্রার্থী হব । দেশমাতা বেগম খালেদা জিয়াকে জুল থেকে মুক্ত করে এবং দেশ নায়ক জনাব তারেক রহমান যদি আমাকে আমাকে যোগ্য মনে করেন আমি অবশ্যই এই আসন থেকে লড়বো এবং ব্যাপক ভোটের ব্যবধানে জয় লাভ করবো । এছাড়া আর ও তথ্যে জানা যায় মোঃমোসলেহ উদ্দিন হাওলাদার আরিফ অস্ট্রেলিয়া থেকে পড়াশোনা শেষ করে ব্যবসার সাথে লন্ডনে অবস্থিত তারেক রহমানের আন্তর্জাতিক লবিংয়ের সাথে কাজ করেছেন। বিশেষ করে ১/১১ আন্দোলনে তার ভূমিকা খুবই প্রসংসনীয় হিসেবে দেশে বিদেশে খুবই আলোচিত এই কারনেই বিএনপির বর্তমান ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যনের সাথে রয়েছে তার খুবই সুসম্পর্ক।