‘দেশে এখন কতিপয় লোভী মানুষের কুশাসন চলছে’

গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন কার্যকর গণতন্ত্র, আইনের শাসন ও সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবীতে জনগণকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি বলেন, কুশাসন থেকে দেশকে মুক্ত করতে হবে। দেশে এখন কতিপয় লোভী মানুষের কুশাসন চলছে।মঙ্গলবার মহান মে দিবস উপলক্ষে ঢাকা মহানগর গণফোরামের উদ্যোগে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় ড. কামাল হোসেন এসব কথা বলেন। মোস্তফা মোহসীন মন্টুর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী, রফিকুল ইসলাম পথিক, রওশন ইয়াজদানী, সাইদুর রহমান সাইদ, কাজী হাবিব প্রমুখ।

ড. কামাল হোসেন আরো বলেন, কার্যকর গণতন্ত্র-আইনের শাসন ও আইনের নিরপেক্ষ প্রয়োগের মাধ্যমে দেশে রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনা সম্ভব। তিনি বলেন, পুলিশকে দায়িত্ব পালন করতে হবে জনগণের স্বার্থে, সুশাসন নিশ্চিত করতে হবে। কিন্তু অসুস্থ রাজনীতি ও শাসন ব্যবস্থার দূর্বলতার কারণে সন্ত্রাস-গুম-খুন-বিচার বহির্ভূত হত্যা বাড়ছে। দুর্নীতি ও সাম্প্রদায়িকতা উন্নয়নকে বাধাগ্রস্ত করছে। তাতে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে গরীব খেটে খাওয়া মানুষগুলো।তিনি বলেন, আমাদের কৃষকরা অক্লান্ত পরিশ্রম করে ফসল উৎপাদন করে, প্রবাসী শ্রমিকরা কঠোর পরিশ্রম করে আমাদের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ বাড়াচ্ছে, ৪০ লক্ষ গার্মেন্টস শ্রমিক দিনরাত খেটে দেশের জন্য ডলার উপার্জন করছে অথচ কতিপয় লোভী দুর্নীতিবাজ সেই টাকা ব্যাংক থেকে লুটপাট করছে, বিদেশে পাচার করছে।

আরো পড়ুন >> ‘জাতীয় নেতার বাড়ি দখল হলে সাধারণ মানুষ কীভাবে রক্ষা পাবে’

সিপিবি’র সাবেক সাধারণ সম্পাদক কমরেড মোহাম্মদ ফরহাদের মত একজন জাতীয় নেতা ও সাবেক সাংসদের বাড়ি যদি এভাবে দখল হয়ে যায়, সেখানে সাধারণ মানুষের সম্পত্তি কীভাবে রক্ষা পাবে? জানতে চেয়েছেনর সিপিবি নেতৃবৃন্দ।পার্টির সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ শাহ আলম বুধবার এক বিবৃতিতে এ প্রশ্ন রাখেন। তারা বলেন, স্মৃতিবিজড়িত বাড়িটি উদ্ধার করতে হবে। সরকারের দায়িত্ব হচ্ছে দখলদারদের কাছ থেকে কমরেড ফরহাদের বাড়িটি দ্রুতিই উদ্ধার করা।বিবৃতিতে তারা আরো বলেন, সিপিবি’র সাবেক সাধারণ সম্পাদক গণমানুষের প্রিয় নেতা কমরেড মোহাম্মদ ফরহাদের দিনাজপুরের ক্ষেত্রিপাড়া পৈত্রিক বাড়ি দখলের তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন। একইসঙ্গে বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে বাড়িটি উদ্ধার করার জন্য সরকারের প্রতি জোর দাবি জানিয়েছেন।

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, দিনাজপুরের এই বাড়িটি কমরেড মোহাম্মদ ফরহাদের স্মৃতিবিজড়িত। এই বাড়িতেই তিনি জন্মগ্রহণ করেন এবং বেড়ে উঠেছেন। বাড়িটি তাঁর মা তৈয়বুন্নেছার নামে। তিনি যতদিন বেঁচে ছিলেন, ততদিন এই বাড়িতেই থাকতেন।কমরেড ফরহাদও দিনাজপুরে গেলে ওই বাড়িতে থাকতেন। শুধু ব্যক্তিগত স্মৃতিই নয়, এই বাড়ির সঙ্গে অনেক রাজনৈতিক ঘটনাও যুক্ত হয়ে আছে। কিন্তু স্বাক্ষর জালিয়াতি করে বাড়িটি রেজিস্ট্রি করা হয় এবং বাড়ির ৬ শতক জমি বিক্রি করে দেওয়া হয়। বাড়িতে অবৈধভাবে নতুন স্থাপনা নির্মাণ করা হয়েছে। এই ঘটনায় জনমনে ব্যাপক ক্ষোভে সৃষ্টি হয়েছে।