বদির বেয়াই যেমন ছাড় পায়নি, বদিও ছাড় পাবে না: ওবায়দুল

বদির বেয়াই যেমন ছাড় পায়নি— তেমনি অভিযোগ প্রমাণিত হলে বদিও ছাড় পাবে না বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। শনিবার সকালে সাভারের বাইপাইল এলাকায় বাইপাইল-আব্দুল্লাপুর ও নবীনগর-চন্দ্রা মহাসড়কের সার্বিক অবস্থা পরিদর্শন করতে গিয়ে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, মাদকের সঙ্গে জড়িত সে যে দলেরই হোক না কেন, কেউ ছাড় পাবে না। সরকার মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ করেছে। তাই মাদকের বিরুদ্ধে সর্বাত্মক অভিযান শুরু করেছে র্যা ব ও পুলিশ। এ অভিযানে একটি মহল খুশি না হলেও দেশের মানুষ অনেক খুশি বলে মন্তব্য করেন ওবায়দুল কাদের। সংবাদ উৎস- দেশ টিভি

আরও পড়ুন- প্রধানমন্ত্রীর ডি.লিট গ্রহণ, সব বাঙালিকে উৎসর্গ

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের আসানসোলে কাজী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সম্মানসূচক ডি.লিট ডিগ্রি গ্রহণ করেছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এই ডিগ্রি দুই বাংলার সকল বাঙালির উদ্দেশে উৎসর্গ করেন তিনি।আজ শনিবার কাজী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশেষ সমাবর্তনে শেখ হাসিনার হাতে সনদ তুলে দেন উপাচার্য সাধন চক্রবর্তী।

এর আগে স্থানীয় সময় দুপুর ১২টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, পশ্চিমবঙ্গের শিক্ষা বিষয়ক মন্ত্রী পার্থ চ্যাটার্জী এবং বিভিন্ন অনুষদের ডিনদের সঙ্গে নিয়ে সমাবর্তনস্থলে আসেন। উপাচার্য সাধন চক্রবর্তী শুরুতেই বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীদের স্বর্ণপদক ও সনদ তুলে দেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ডি.লিট ডিগ্রি গ্রহণ শেষে রাখা বক্তব্যে এই ডিগ্রি দুই বাংলার সকল বাঙালির উদ্দেশ্যে উৎসর্গ করেন। মুক্তিযুদ্ধকালীন এক কোটি বাংলাদেশি শরণার্থীকে পশ্চিমবঙ্গে আশ্রয় দেওয়ায় পশ্চিমবঙ্গবাসীকে ধন্যবাদ দেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী।

গতকাল শুক্রবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আমন্ত্রণে দুদিনের সরকারি সফরে পশ্চিমবঙ্গে যান। সেখানে শান্তিনিকেতনে বিশ্বভারতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘বাংলাদেশ ভবন’ উদ্বোধন করেন শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এ সময় উপস্থিত ছিলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

সেদিনই পরে কলকাতার তাজ বেঙ্গল হোটেলের ম্যান্ডারিং কক্ষে কলকাতার ব্যবসায়ী নেতারা প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। এ ছাড়া গতকাল বিকেলেই জোড়াসাঁকোর ঠাকুরবাড়ি পরিদর্শন করেন শেখ হাসিনা। পরিদর্শনের সময় প্রধানমন্ত্রী সেখানে বাংলাদেশ গ্যালারি তৈরির প্রতিশ্রুতি দেন। শেখ হাসিনা রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ভাস্কর্যে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন এবং চীন-জাপান গ্যালারি ও রবীন্দ্র মিউজিয়ামসহ পুরো ভবনটি ঘুরে দেখেন।

খবরটি শেয়ার করুন