মার্কিন রাষ্ট্রদূতের গাড়ি ও ‘সুজন’ সম্পাদকের বাড়িতে ছাত্রলীগের হামলা

বাংলাদেশের একটি এনজিও সুশাসনের জন্য নাগরিক ‘সুজন’ এর সম্পাদক বদিউল আলম মজুমদারের বাড়িতে শনিবার রাতে হামলা করা হয়েছে।
হামলাটি এমন সময়ে হয় যখন মার্কিন রাষ্ট্রদূত মার্শা বার্নিকাট ঐ বাসা ছেড়ে যাচ্ছিলেন।
বাংলাদেশের মার্কিন রাষ্ট্রদূত মার্শা বার্নিকাটের বিদায় উপলক্ষে মি. মজুমদারের বাসায় নৈশভোজের আয়োজন করা হয়।
অনুষ্ঠান শেষে মার্কিন রাষ্ট্রদূত যখন মি. মজুমদারের বাসা ত্যাগ করছিলেন তখন কয়েকজন যুবক রাষ্ট্রদূতের গাড়ি লক্ষ্য করে ইট-পাটকেল ছোঁড়ে বলে জানান মি. মজুমদার।
মি. মজুমদার বলেন, “রাত এগারোটা সময় রাতের খাবার খেয়ে বাসা থেকে বের হয়ে যখন উনি গাড়িতে উঠছিলেন তখন একদল লোক হামলা করে।”
হামলাকারীরা রাষ্ট্রদূতের গাড়ির পেছনে ধাওয়া করে ঢিল ছোঁড়ে বলে জানান মি. মজুমদার।

তবে মোহাম্মদপুর থানার সাথে যোগাযোগ করা হলে মার্কিন রাষ্ট্রদূতের ওপর হামলার কোন খবর তাদের কাছে নেই বলে জানান কর্মকর্তা।
বিবিসিকে মি. মজুমদার জানান মার্কিন রাষ্ট্রদূতের গাড়ি চলে যাওয়ার পর তাঁর বাসাতে হামলা চালানো হয়।
“তারা আমার বাড়ির দরজা ভেঙে ভেতরে ঢোকার চেষ্টা করে। না পারায় ইট-পাটকেল ছুঁড়ে জানালার কাঁচ ভেঙেছে”, বলেন মি. মজুমদার।
মি. মজুমদারের ভাষ্য অনুযায়ী ১০-১৫ জন যুবক হামলাটি চালায়।
পুলিশ কী বলছে?
এ ঘটনায় জরুরি হেল্পলাইন নম্বর ৯৯৯ নম্বরে যোগাযোগ করে পুলিশের সহায়তা চান মি. মজুমদার।
মোহাম্মদপুর থানার দায়িত্বরত পুলিশ কর্মকর্তা মো: রাজিব মিয়া বিবিসি বাংলাকে বলেন, “ইকবাল রোডের একটি বাসায় দুর্বৃত্তরা ইট-পাটকেল ছুঁড়েছে – ৯৯৯ থেকে এমন একটি খবর পাওয়ার পর সংশ্লিষ্ট এলাকার টহল দলকে সেখানে পাঠানো হয়।”
পুলিশ কর্মকর্তা রাজিব মিয়া জানান ঘটনার সত্যতা যাচাই করার পর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাসহ সিনিয়র অফিসাররা সেখানে পরিদর্শনে যান।
এ ঘটনায় থানায় কোনো মামলা হয়নি বলে জানান মি. মিয়া।