এই জাগরণ বন্ধ করা যাবে না: রুহুল কবির রিজভী

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, নিরাপদ সড়কের দাবিতে ছাত্র-ছাত্রীদের ন্যায্য আন্দোলনকে দমানোর জন্যই পুলিশ রাজধানীর বিভিন্ন এলাকাকে আতঙ্কের জনপদে পরিণত করেছে। সরকার এখন প্রতিশোধের খেলায় মেতে উঠেছে। কিন্তু এই জাগরণ বন্ধ করা যাবে না।

আজ বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মলেন তিনি এসব কথা বলেন।

রিজভী বলেন, সরকারের প্রতারণা আড়াল করতে সাধারণ শিক্ষার্থীদের ওপর দমন-পীড়নের পর এখন চলছে র‌্যাব-পুলিশ দিয়ে ক্র্যাক-ডাউন। নিরপরাধ শিক্ষার্থীদের আটক করার পর কোমরে দড়ি বেঁধে রিমান্ডে নিয়ে নির্যাতন করা হচ্ছে। আন্দোলনে অংশগ্রহণকারী স্কুল-কলেজ পড়ুয়াদের অভিভাবকরা অজানা আতঙ্কে উৎকন্ঠিত হয়ে দিশেহারা হয়ে পড়েছে। জাতিসংঘসহ আন্তর্জাতিক সংস্থা ও মিডিয়া, উন্নয়ন সহযোগী দেশ শিক্ষার্থী ও সাংবাদিকদের ওপর ছাত্রলীগের এই সশস্ত্র হামলাকে সহিংস হামলা হিসেবে আখ্যায়িত করেছে বলেও মন্তব্য করেন রিজভী।

রিজভী আরও বলেন, শিশু-কিশোরদের আন্দোলনে ভয় পেয়েছে সরকার। এই আন্দোলন প্রচলিত আন্দোলন নয়, এটি ভিন্ন ধারার প্রতিবাদের এক অনন্য স্বতন্ত্র রূপ। শিশুদের জাগরণের ঢেউ লেগেছে শহর থেকে গ্রামে আনাচে-কানাচে। এই জাগরণ দুঃশাসনের বিরুদ্ধে। যতই যড়যন্ত্র ও তৎপরতার কথা বলুক না কেন আওয়ামী লীগের দুঃশাসনের বিদায়ের বাঁশি বাজতে শুরু করেছে। এসময় তিনি শিশু-কিশোর শিক্ষার্থীদের হয়রানি বন্ধ করার আহ্বান জানান।