বাংলাদেশে বাকস্বাধীনতা ও প্রতিবাদের অধিকারের প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের সমর্থন

বাংলাদেশে বাকস্বাধীনতা ও শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদের অধিকারের প্রতি সমর্থন জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটি বলেছে, বাংলাদেশের সঙ্গে আমাদের ভালো সম্পর্ক রয়েছে। বিভিন্ন বিষয়ে আমাদের উদ্বেগ বাংলাদেশ সরকারকে পরিষ্কার জানিয়েছি। আমরা সেখানে বাকস্বাধীনতা ও শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদের অধিকারকে সমর্থন করি। বুধবার মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নিয়মিত সংবাদ সম্মেলনের প্রশ্নোত্তর পর্বে বাংলাদেশ প্রসঙ্গ উঠে আসলে মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র হিদার নর্ট এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, বাংলাদেশে সপ্তাহ খানেক আগের ওই আন্দোলনের বিষয়ে আমরা অবগত আছি।
সেখানে দ্রুতগামী একটি বাসের ধাক্কায় দুই শিশু নিহত হয়। পরে তরুণরা জেগে ওঠে। তারা আরো নিরাপদ গাড়ি চালনার দাবি জানায়। পরে ওই আন্দোলন তীব্র হতে থাকে।
হিদার নর্ট বলেন, ‘বাংলাদেশ সরকার বেশ কিছু পদক্ষেপ নিয়েছে। আমি মনে করি, আন্দোলনের লাগাম টেনে ধরার জন্যই তারা এমনটি করেছে। আমার কাছে নতুন কোনো তথ্য নেই। তবে বাংলাদেশের সরকারের সঙ্গে আমাদের ভালো সম্পর্ক রয়েছে। আমরা তাদের সঙ্গে পারস্পরিক সহযোগিতা অব্যাহত রাখবো।’